শোল মাছ খান? পরে খাওয়ার আগে একটু জেনে নিন

শোল মাছ

শোল Channidae গোত্রের Channa গণের এক প্রকার স্বাদুপানির মাছ। ইংরেজিতে Snakehead murrel নামে পরিচিত এই মাছের বৈজ্ঞানিক নাম Channa striata. আমাদের দেশে এই মাছ সুপরিচিত। দেশীয় প্রজাতির মাছের মধ্যে এটি অন্যতম। এই মাছ বাংলাদেশের জনপ্রিয় একটি মাছ যা স্বাদে ও পুষ্টিগুণে অন্যান্য মাছের চেয়ে অনেক ভাল। এই মাছটি বিশেষ করে কোষ্টকাঠিন্য রোগীদের জন্য উপকারী হয়। দেখতে টাকি বা চ্যাং মাছের মতো হলেও এর আলাদা কিছু বৈশিষ্ট্য আছে। তবে, এই মাছটি খাওয়ার আগে কিছু বিষয় জানা প্রয়োজন।




শোল মাছ চাষের ক্ষেত্রে পোনা মাছকে খাবার হিসেবে চিংড়ি শুঁটকির গুঁড়া ভালোভাবে পিষে দিতে হয়। এভাবে ১৫ দিন খাওয়ানোর পর পোনাগুলো প্রায় ২/৩ ইঞ্চি হয়। এর পর বর্ষাকালে এটি লাফিয়ে চলে যায়।

আরও পড়ুন: কমে যাচ্ছে পুরুষের শুক্রাণু : ভয়ঙ্কর তথ্য গবেষণার

বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা প্রযুক্তি কিনতে আগ্রহ দেখিয়েছেন এবং মেধাস্বত্ব সংরক্ষণের প্রতিশ্রুতি দিলে নেদারল্যান্ডসের ব্যবসায়ী ও বিশেষজ্ঞরা প্রযুক্তি সহযোগিতা দিতে রাজি থাকার বিষয়টি উল্লেখ করেছেন।

এছাড়াও, বাংলাদেশের একমাত্র মৎস্য জাদুঘরের পরিচালক অধ্যাপক মোস্তফা আলী রেজা হোসেন জানিয়েছেন, এই মুহুর্তে দেশের ১১৮ প্রজাতির দেশীয় মাছ বিপন্ন অবস্থায় রয়েছে। এর মধ্যে এই মাছও অন্তর্ভুক্ত।

সুতরাং, শোল মাছ খাওয়ার আগে এই মাছের চাষ, প্রযুক্তি ও বিপন্ন অবস্থায় রয়েছে এই বিষয়গুলো জানা প্রয়োজন। এই তথ্যগুলো জানা আমাদের সচেতন ভাবে মাছ খাওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করবে।

Juger Alo Google News   যুগের আলো’র সর্বশেষ খবর পেতে Google News অনুসরণ করুন