বহুল প্রতীক্ষিত স্বপ্নের গ্যাস এল রংপুরে, ঘটবে শিল্প বিপ্লব

রংপুরে গ্যাস

রংপুর বিভাগে এল বহুল প্রতীক্ষিত স্বপ্নের গ্যাস। শুরু হয়েছে সরবরাহ। গতকাল সকালে ঢাকা থেকে অনলাইনে যুক্ত হয়ে গ্যাস সঞ্চালন লাইনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পর পীরগঞ্জ উপজেলার নিয়ামতপুর চৌরাহাট এলাকায় গ্যাস স্টেশন প্রাঙ্গণে ফলক উন্মোচন ও গ্যাস প্রজ্বালন করেন, পেট্রো বাংলার চেয়ারম্যান জনেন্দ্র নাথ সরকার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১১ সালে রংপুর সফরে এসে সেই দাবি বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দেন। এরপরই রংপুরে পাইপলাইনে প্রাকৃতিক গ্যাস সংযোগ সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত নেন সরকার। শুরু হয় বগুড়া থেকে রংপুর হয়ে নীলফামারী পর্যন্ত গ্যাস সঞ্চালনের পাইপলাইন স্থাপনের কাজ।

পেট্রো বাংলার চেয়ারম্যান জনেন্দ্র নাথ সরকার সাংবাদিকদের বলেন, সরকার উত্তরাঞ্চলে শিল্পায়নের মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ মানুষকে শ্রমে যুক্ত করাসহ নতুন উদ্যোক্তা তৈরি করতে চায়। তাই নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে প্রায় ৭০০ কিলোমিটার দূর থেকে রংপুর বিভাগে গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে। আপাতত শিল্প এলাকায় গ্যাস দিবো। ২০২৬ সালে আমাদের পর্যাপ্ত গ্যাস সরবরাহের সক্ষমতা অর্জনের কথা। এটি হলে সর্বক্ষেত্রেই গ্যাস সরবরাহ করা হবে।

রংপুর অঞ্চলে গ্যাস সরবরাহের জন্য রাষ্ট্রীয় দুটি কোম্পানি কাজ করছে। সঞ্চালনের দায়িত্বে রয়েছে জিটিসিএল, আর বিতরণ অংশের প্রকল্পের দায়িত্বে রয়েছে পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (পিজিসিএল)। সঞ্চালন কোম্পানি বগুড়া থেকে সৈয়দপুর পর্যন্ত সঞ্চালন লাইন নির্মাণ শেষ করেছে। তবে বিতরণ লাইনের কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত গ্রাহকরা এর সুবিধা পাচ্ছেন না। পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সঞ্চালনের উদ্বোধনের পাশাপাশি বিতরণ লাইনের কাজ উদ্বোধন করা হবে।

আরও পড়ুন: সংলাপ ছাড়া নির্বাচনে গেলে নিষেধাজ্ঞা আসতে পারে: জিএম কাদের

বহুল প্রতীক্ষিত স্বপ্নের এই গ্যাস সরবরাহে রংপুরবাসীর আনন্দ মিছিল করেছে। এটি গ্যাস শিল্প বিপ্লবে অমুল পরিবর্তন ঘটবে, পাশাপাশি র্শিল্প এলাকায় নতুন উদ্যোক্তা তৈরি করবে এবং বিপুল পরিমাণ মানুষকে শ্রমে যুক্ত করবে। এটি সর্বক্ষেত্রেই গ্যাস সরবরাহ করবে এবং সবাইকে এর সুবিধা উপভোগ করার সুযোগ দিবে।